বুধবার, নভেম্বর 30, 2022

শেয়ার কারসাজির দায়ে ফের জরিমানা কবলে হিরুর স্ত্রী

পুঁজিবাজার ডেস্কঃ বীমা খাতের কোম্পানি বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের (বিএনআইসিএল) শেয়ার কারসাজির দায়ে মোনার্ক হোল্ডিংসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও বহুল আলোচিত বিনিয়োগকারী আবুল খায়ের হিরোর স্ত্রী কাজী সাদিয়া হাসান এবং তার সহযোগীদের ২ কোটি ৪০ লাখ টাকা জরিমানার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (বিএসইসি) তদন্ত প্রতিবেদনের আলোকে সম্প্রতি নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) এই সিদ্ধান্ত নেয়।

কাজী সাদিয়ার সহযোগীরা হলেন—সিটি ব্রোকারেজের বিনিয়োগকারী এজি মাহমুদ, একই ব্রোকারেজ হাউজের বিনিয়োগকারী তার ভাই মো. সাইফ উল্লাহ ও ডিআইটি কো-অপারেটিভ।

এ বিষয়ে বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন নির্বাহী পরিচালক বলেন, কমিশন সভার সিদ্ধান্তের আলোকে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছি।

বিএসইসির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্সের শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ অর্ডিনেন্স, ১৯৬৯ সেকশন ১৭(ই)(৫) ভঙ্গ করার জন্য কাজী সাদিয়া হাসানকে ১ কোটি ৪০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া একই আইনে সাইফ উল্লাহকে ৫০ লাখ টাকা, এজি মাহমুদকে ১৫ লাখ টাকা ও ডিআইটি কো-অপারেটিভকে ৩৫ লাখ টাকা জরিমানা করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

ডিএসইর তদন্ত প্রতিবেদন অনুসারে, ২০২১ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্সের শেয়ারের দাম ছিল ৪৬ টাকা ১০ পয়সা। এরপর সে বছরের ১৬ মে কোম্পানিটির শেয়ারের দাম বেড়ে দাঁড়ায় ১৪৯ দশমিক ৩০ টাকায়। ওই বছরের ২৭ সেপ্টেম্বর কোম্পানিটির শেয়ারের দাম সর্বোচ্চ বেড়ে দাঁড়ায় ১৬৩ দশমিক ৮০ টাকায়। তবে ২০২০ সালের জুলাই থেকে চলতি বছরের অক্টোবর পর্যন্ত কোম্পানিটির শেয়ার ৮৫৯ শতাংশ বেড়ে ১৬৩ টাকা ৮০ পয়সায় দাঁড়ায়।

এর আগেও আবুল খায়ের হিরুর স্ত্রী কাজী সাদিয়া হাসান, সিটি ব্রোকারেজের বিনিয়োগকারী মো. এ জি মাহমুদ, একই ব্রোকারেজ হাউজের বিনিয়োগকারী ও তার ভাই মো. সাইফ উল্লাহ এবং ডিআইটি কো-অপারেটিভকে একাধিকবার জরিমানা করা হয়েছে। তারা সবাই শেয়ার ব্যবসার সঙ্গে জড়িত এবং আবুল খায়ের হিরুর সহযোগী হিসেবে কাজ করে থাকে।

spot_img

অন্যান্য সংবাদ