শুক্রবার, মে ২৭, ২০২২

প্রথমবারের মতো ‘ইএসজি রিপোর্ট’ প্রকাশ করল বিএটি বাংলাদেশ

প্রথমবারের মতো ইএসজি (এনভায়রনমেন্টাল, সোস্যাল ও গভর্ন্যান্স) প্রতিবেদন-২০২১ প্রকাশ করেছে বিএটি বাংলাদেশ। এ উপলক্ষে সম্প্রতি রাজধানীস্থ হোটেল সোনারগাঁওয়ে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

এতে সরকারি ও বেসরকারি খাতের গণ্যমান্য অতিথিরা উপস্থিত ছিলেন।

এই আয়োজনের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে ইএসজি ধারণার অন্যতম পথিকৃৎ বিএটি বাংলাদেশ দেশের প্রথম কোম্পানি হিসেবে ইএসজি রিপোর্ট প্রকাশের গৌরব অর্জন করল।
ব্যবসাকে টেকসই ভবিষ্যতের দিকে পরিচালনার মাধ্যমে একটি সম্ভাবনাময় আগামী বিনির্মাণ বিএটি বাংলাদেশের লক্ষ্য। কোম্পানিটি দেশের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জনে সরকারের উন্নয়ন অংশীদার হিসেবে কাজ করে আসছে। প্রতিষ্ঠানটি তাদের লক্ষ্যকে সামনে রেখে কীভাবে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করছে এবং কীভাবে বৃহত্তর সম্প্রদায়ে উল্লেখযোগ্য প্রভাব রাখবে তার রূপরেখা দেয়া হয়েছে এই প্রতিবেদনে।
এই প্রতিবেদনে কার্বন নিঃসরণ হ্রাস, বর্জ্য পুনর্ব্যবহার, জল পুনর্ব্যবহার, নবায়নযোগ্য শক্তির সর্বাধিক ব্যবহার এবং আরও অনেক কিছুর সমন্বয়ে বিএটি বাংলাদেশের ইএসজি লক্ষ্যগুলি অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। কোম্পানিটি ১১১ বছর ধরে সফলতার সাথে ব্যবসায় পরিচালনা করে আসছে। মাটির উর্বরতা বৃদ্ধি, জল সংরক্ষণ এবং দূষণ হ্রাস করার জন্য পরিবেশ-বান্ধব এবং টেকসই কৃষি পদ্ধতি সম্পর্কে কৃষক সম্প্রদায়কে শিক্ষিত করার জন্য অসংখ্য উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। এছাড়াও কোম্পানির বিশুদ্ধ খাবার পানির প্রকল্প যা দেশব্যাপী ১১১ টি পানি বিশুদ্ধকরণ প্ল্যান্টের মাধ্যমে প্রতিদিন ২ লক্ষ ৭৩ হাজার গ্রামীণ মানুষের খাবার পানির চাহিদা পূরণ করছে এবং জাতীয় বিদ্যুৎ গ্রিডের বাইরে থাকা ১৫ হাজার মানুষের জীবন আলোকিত করা নবায়নযোগ্য সৌর বিদ্যুৎ প্রকল্পটি কোম্পানির ইএসজি এর অন্যতম প্রাধান্য। সম্প্রতি কোম্পানিটি রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন এবং সোলশেয়ারের সহযোগিতায় রাজশাহীতে একটি নবায়নযোগ্য জ্বালানিভিত্তিক প্ল্যান্টের সূচনা করেছে।
ইএসজি রিপোর্ট প্রকাশ নিয়ে বিএটি বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব শেহ্জাদ মুনীম বলেন, ‘ইএসজি রিপোর্ট প্রকাশ করার মাধ্যমে আমাদের অগ্রগতি তুলে ধরতে পেরে আমরা আনন্দিত। উন্নয়নে সরকারের সঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে বিভিন্ন কার্যক্রমের মাধ্যমে এসডিজি’র ৮টি লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সহায়তা করছে বিএটি বাংলাদেশ। এই ইএসজি প্রতিবেদনটি এক সম্ভাবনাময় আগামী বিনির্মাণে বিএটি বাংলাদেশ-এর নিরলস প্রচেষ্টা ও সামাজিক দায়বদ্ধতার অনন্য নজির।’
টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যে প্রচেষ্টার স্বীকৃতিস্বরুপ একাধিকবার উল্লেখযোগ্য সম্মাননা পেয়েছে বিএটি বাংলাদেশ। যেমন, বনায়নের জন্য প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় পুরস্কার (৫ বার), পরপর সর্বোচ্চ করদাতার পুরস্কার, এসিইএস কর্তৃক শীর্ষ সবুজ কোম্পানি পদক, শীর্ষ নিয়োগকর্তার পুরস্কার (একটানা ৩ বার), এশিয়া দায়িত্বশীল উদ্যোক্তা পুরস্কারসহ ও অন্যান্য। বিএটি বাংলাদেশ বিশ্বাস করে, এই ইএসজি রিপোর্ট অন্যান্য সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকেও অনুপ্রাণিত করবে এবং সকলের জন্য এক সম্ভাবনাময় আগামী বিনির্মাণের পথ প্রশস্ত করবে।

spot_img

অন্যান্য সংবাদ