মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর 27, 2022

সূচকের গতি বিশ্রামে

পুঁজিবাজার রিপোর্টঃ নিয়ন্ত্রক সংস্থার নানা পদক্ষেপে টানা ৩ সপ্তাহ ধরে চলা ধ্বসের রশিতে টান পড়ে ৮ মার্চ থেকেই। এরপরের প্রতিটি কার্যদিবস যেন ঠিক ‘মিরর ইমেজ’। আগের দিনগুলোতে সূচক যেভাবে পড়েছিল ৯ মার্চ থেকে ঠিক সেভাবেই বাড়ছিলো সূচক। সেই উত্থান যেন আজ কিছুটা বিরতি নিলো। বিশ্রাম নিতে থামলো সূচকের উত্থান গতি।

টানা চার দিন উত্থান শেষে আজ সামান্য কমেছে সূচক। পাশাপাশি লেনদেনও কমেছে কিছুটা। তারপরও পুরো চিত্রকে বিশ্লেষকরা বাজারের স্বাভাবিক আচরণই বলছেন।

তাদের মতে, এই সামান্য সূচক কমার বিষয়টি মোটেও অপ্রত্যাশিত ছিল না। আগের চার দিন টানা বাড়ার পরে আজ অনেকেই বাজার থেকে মুনাফা তুলে নেয়ার চেষ্টা করে। আর সেই ধারাবাহিকতায় সুচকে কিছুটা সংশোধন হয়েছে।

তবে এই পয়েন্ট হারানোতে আশংকিত হওয়ার কিছু নেই বলে মনে করেন বাজার বিশেষজ্ঞরা। তাদের মতে, নিয়ন্ত্রক সংস্থা দরপতনের সীমা ২ শতাংশ নির্ধারণ করে দেয়ায় আগের মতো সূচকের বড় ধ্বস দেখার সুযোগ আর নেই।

এ প্রসংগে ডিএসইর একটি ব্রোকারেজ হাউজের প্রধান নির্বাহি বলেন, পৃথিবীতে কখনই কোন বাজার টানা বাড়ে না। বাজারের সামনে আগানোর জন্য তার কিছুটা শক্তি সঞ্চয় করতে হয়। তাতে সূচকের রেখায় ভাজ দেখা যায়। আজকের বাজার তেমনই শক্তি সঞ্চয়ের দিন ছিলো। এই সামান্য সূচক কমার বিষয়টি নিয়ে তাই আমরা মোটেও ভাবছি না।

তিনি বলেন, আজ ১৭৮টি কোম্পানির দরপতনের ভিড়ে ৬২টি কোম্পানির দর কমেছে নতুন সার্কিট ব্রেকারে। আরও ২৪টির বেশি কোম্পানি দর পতনের সর্বোচ্চ সীমার কাছাকাছি থেকে লেনদেন শেষ করেছে। অন্য সময় এতগুলো কোম্পানির দরপতন হলে সূচক অনেক বেশি পয়েন্ট হারাতো। সেখানে আজ সূচক হারিয়েছে মাত্র ১.৮ পয়েন্ট।

আজ দিনজুড়েই সূচকের ওঠানামা পরিলক্ষিত হয়। আজ সোমবার বাজার শুরু হয় ৬৫৬৫.৭৩ পয়েন্টে। এদিন লেনদের শুরুর সাথে সাথে ইনডেক্স বাড়ে ১৩ পয়েন্ট। সেখান থেকে কমতে কমতে ২০ পয়েন্ট কমে দিনের সর্বনিম্ম অবস্থানে পৌছায় সূচক। আবার দিনের মধ্যভাগে সূচক ধিরে ধিরে ৪৪ পয়েন্ট বেড়ে দিনের সর্বোচ্চ অবস্থান ৬৭৮৯.৫৯ পয়েন্টে পৌছায়। এভাবে ওঠানামা করতে করতে দিন শেষ হয় ৬৬৬৩.৯৩ পয়েন্টে।

অন্য সূচকগুলোর মধ্যে ডিএসইএস শরিয়া সূচক দশমিক ৪৭ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৪৫২ পয়েন্টে এবং ডিএস৩০ সূচক ২.৭ পয়েন্ট কমে ২ হাজার ৪৬০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

ডিএসইতে আজ ৩৭৮টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৬৭টির বা ৪৪.১৮ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে। দর কমেছে ১৭৮টির বা ৪৭.০৯ শতাংশের এবং ৩৩টি বা ৮.৭৩ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

অন্যদিকে গতকালের চেয়ে আজ সামান্য কম লেনদেন হয়েছে বাজারে। আজ সারাদিনে ডিএসইতে টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ৯৮৬ কোটি ৫১ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট। যা আগের দিন থেকে ১২ কোটি ২২ লাখ টাকা কম। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৯৯৮ কোটি ৭৩ লাখ টাকার।
আজ ডিএসইতে ৩৭৮টি কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিটের লেনদেন হয়েছে । এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৬৭টির, কমেছে ১৭৮টির এবং অপরিবর্তিত আছে ৩৩টির।

spot_img

অন্যান্য সংবাদ