শুক্রবার, সেপ্টেম্বর 30, 2022

ভয়াবহ ধসের কবলে পুঁজিবাজার

পুঁজিবাজার রিপোর্টঃ ছোটোখাটো পতন দেখতে অভ্যস্ত বাংলাদেশের বিনিয়োগকারিরা ১৯৯৬ এবং ২০১০ সালের পর আরো একটি ভয়াবহ ধস দেখলো আজ পুঁজিবাজারে।নিকট অতীতে এতবড় ধস এ দেশের মানুষ দেখেনি। গতকালও বড় পতন হয়েছে। তবে আজকের মতো এতো বড় পতন হয়নি। ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ এই পতনের কারন বলে অনেকেই মনে করছেন।

আজ ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১৮২.১২ পয়েন্ট বা ২.৭৪ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ৪৫৬.৫১ পয়েন্টে। ডিএসইতে আজকে পতনের মাধ্যমে এই সূচকটি সাত মাস ৮ দিন বা ১৫০ কার্যদিবস আগের অবস্থানে নেমে গেছে। এর আগে ২০২১ সালের ২৯ জুলাই সূচকটি আজকের চেয়ে নিচে অর্থাৎ ৬ হাজার ৪২৫ পয়েন্টে অবস্থান করছিল। ডিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ৩৬.৬১ পয়েন্ট বা ২.৫৫ শতাংশ এবং ডিএসই-৩০ সূচক ৬৪.৫৪ পয়েন্ট বা ২.৬৪ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৩৯৪.৪০ পয়েন্টে এবং দুই হাজার ৩৭৪.৩৯ পয়েন্টে।

ডিএসইতে আজ টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ৭৪০ কোটি ২৬ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট। যা আগের দিন থেকে ৯৫ কোটি ৭১ লাখ টাকা বেশি। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৬৪৪ কোটি ৫৫ লাখ টাকার।

ডিএসইতে আজ ৩৭৯টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৭টির বা ১.৮৫ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে। দর কমেছে ৩৬৪টির বা ৯৬.০৪ শতাংশের এবং ৮টি বা ২.১১ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ৪৪৭.৪৫ পয়েন্ট বা ২.৩০ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ১৮ হাজার ৯৯৭.০৩ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৯৪টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ২০টির, কমেছে ২৫০টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৪টির দর। আজ সিএসইতে ২০ কোটি ৭১ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

 

spot_img

অন্যান্য সংবাদ