সোমবার, অক্টোবর 3, 2022

১ হাজার কোটি টাকার সুকুক আনছে আইসিবি

পুঁজিবাজার ডেস্কঃ এক হাজার কোটি টাকার সুকুক বন্ড ইস্যু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অফ বাংলাদেশ (আইসিবি)। এই সুকুক বন্ড কিনতে পারবেন ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীরাও। তবে আগে এলে আগে পাবেন ভিত্তিতে তাদের বরাদ্দ দেয়া হবে।

উত্তোলন করা এক হাজার কোটি টাকা আইসিবি পুঁজিবাজার এবং মানি মার্কেটের বিভিন্ন শরিয়াহভিত্তিক কোম্পানিতে বিনিয়োগ করবে। এর মধ্যে কমপক্ষে ৭০ শতাংশ বা ৭০০ কোটি টাকা পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করা হবে এবং বাকি অংশ অর্থ বাজারে বিনিয়োগ করা হবে।

এই বন্ডের বিপরীতে বছর শেষে নিট লাভ থেকে ন্যূনতম ৭৫ শতাংশ বিতরণ করে দেয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। বাকী টাকা ভবিষৎয়ের জন্য সংরক্ষণ করা হবে। এছাড়াও দেশের আইন অনুযায়ি কর সুবিধাও পাবেন এই বন্ডে বিনিয়োগকারীরা।

১০ বছর মেয়াদি এই সুকুক থেকে মুলধন ফেরত পাওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হবে ষষ্ঠ বছর থেকে। ওই সময় অভিহিত মূল্য বা বাজারমূল্যের মধ্যে যেটি কম থাকবে সেই হিসেবে ইস্যুকৃত মূলধনের ২০ শতাংশ করে মোট ৮০ শতাংশ মূলধন ষষ্ঠ থেকে নবম বছর শেষে প্রদান করা হবে। অবশিষ্ট অংশ দশম বছর শেষে বাজারমূল্যের ভিত্তিত্তে পরিশোধ করা হবে।

ডিএসই ওয়েবসাইটে সোমবার আইসিবি পক্ষ থেকে জানানো হয়, সুকুকের প্রতিটি ইউনিটের মূল্য হবে ১ হাজার টাকা। ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের জন্য পাঁচটি ইউনিটে হবে একটি লট, যার মূল্য হবে ৫ হাজার টাকা।

অন্যদিকে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরদের জন্য প্রতি ১০০টি ইউনিটে এক লট নির্ধারণ করা হয়েছে। অর্থ্যাৎ ব্যাংক, বিমা এবং অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠান, দেশি-বিদেশি কোম্পানি, সরকারি প্রতিষ্ঠান এবং করপোরেশন, অন্যান্য সামাজিক প্রতিষ্ঠান, যেমন- ক্লাব ও সমিতি বা অন্য প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা আবেদন করতে চাইলে প্রতি লটে প্রয়োজন হবে ১ লাখ টাকা।

নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)-সহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য সংস্থার অনুমোদন সাপেক্ষে ‘আইসিবি প্রথম মুদারাবা সুকুক’ নামে শরীয়াহ ভিত্তিক এই বন্ড ইস্যু করা হবে। সুকুকের ট্রাস্টি হিসেবে থাকবে আইসিবি ফার্স্ট মুদারাবা সুকুক ট্রাস্ট। তবে সুকুকটি পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হবে না।

  • ট্যাগ
  • ICB
spot_img

অন্যান্য সংবাদ